ঢাকা, শুক্রবার   ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ||  ফাল্গুন ১১ ১৪৩০

সন্ত্রাসবাদের কারণে জনগণের কাছে বারবার প্রত্যাখ্যাত হয়েছে বিএনপি

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১১:৫২, ১২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪  

সন্ত্রাসবাদের কারণে জনগণের কাছে বারবার প্রত্যাখ্যাত হয়েছে বিএনপি

সন্ত্রাসবাদের কারণে জনগণের কাছে বারবার প্রত্যাখ্যাত হয়েছে বিএনপি

ক্ষমতায় থাকতে দুর্নীতি ও সন্ত্রাসবাদের কারণে জনগণের কাছে বারবার প্রত্যাখ্যাত হয়েছে বিএনপি। দেড় যুগেরও বেশি সময় ধরে নিজেদের মধ্যে অস্থিরতা, অভ্যন্তরীণ কোন্দল আর তৃণমূলে অসন্তোষ নিয়ে দলটি আজ কয়েকভাগে বিভক্ত। আর শেষ ভরাডুবিটা হয়েছে- নির্বাচনে অংশ না নিয়ে, জনগণের ওপর আস্থা না রেখে তাদের বিদেশি মুরব্বিদের অন্ধবিশ্বাস করে। এখন নেতৃত্ব সংকট নিয়ে কফিনে পেরেক ঠোকার অবস্থায় রয়েছে বিএনপি। একটি কর্মসূচি দেওয়ার মতো অবস্থানে নেই দলটি। এ অবস্থার জন্য যোগ্য নেতার অনুপস্থিতিকেই দায়ী করছেন দলটির নেতারা।

বিএনপির রাজনৈতিক ব্যর্থতার জন্য দলীয় সমন্বয়হীনতাকে দায়ী করছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা। তাদের মতে, বিএনপি নির্বাচনে ব্যর্থ, আন্দোলনেও ব্যর্থ হয়েছে। ক্ষমতাসীনদের চাপে নয় বরং আস্থাহীনতা ও আত্মবিশ্বাসের অভাবেই বিএনপি আজ রাজপথে দাঁড়াতে পারছে না।

বিএনপির সামগ্রিক ব্যর্থতা তুলে ধরে এক রাজনৈতিক বিশ্লেষক বলেন, জনগণের প্রতি বিএনপির আস্থা নেই। তাই শুধু মনের ভয় ও সঠিক নেতৃত্বের অভাবে রাজপথে নামতে পারছে না বিএনপি। বিষয়টি একটি রাজনৈতিক দলের জন্য চরম হতাশা ও লজ্জাজনক। বার বার মুখে ফেনা তুলেও শক্ত-পোক্ত কোনো আন্দোলন তারা গড়ে তুলতে পারেনি। বিএনপির আন্দোলন-কর্মসূচি কেবল আলোচনার টেবিলেই সীমাবদ্ধ রয়েছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিএনপিপন্থী একজন রাজনৈতিক বিশ্লেষক বলেন, বিএনপি মনে করছে, সরকার পতনে অহিংস আন্দোলনের মাধ্যমেই খালেদা জিয়ার মুক্তি ও পুনরায় নির্বাচনের দাবি-দাওয়া আদায় করা সম্ভব। কিন্তু এটাও সত্য যে, বিএনপির বড় ধরনের আন্দোলন করার মতো সাংগঠনিক কোনো শক্তি নেই। কারণ দলকে নেতৃত্ব দিয়ে এগিয়ে নেওয়ার কেউ নেই। নেতৃত্বের বিচ্ছিন্নতার কারণে বিএনপির আজ এই দশা। এ অবস্থা থেকে উত্তরণে অবিলম্বে কোনো পথের সন্ধানও পাওয়া যাচ্ছে না।

রাজনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
সর্বশেষ
জনপ্রিয়