ঢাকা, রোববার   ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ ||  আশ্বিন ১০ ১৪২৯

চুলের অসুখ : অ্যালোপেশিয়া, ১৪ কোটি মানুষের আছে এই রোগ

স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা ডেস্ক

প্রকাশিত: ০৯:২৭, ২০ জুলাই ২০২২  

চুলের অসুখ : অ্যালোপেশিয়া, ১৪ কোটি মানুষের আছে এই রোগ

চুলের অসুখ : অ্যালোপেশিয়া, ১৪ কোটি মানুষের আছে এই রোগ

দৈনিক যে হারে চুল পড়া স্বাভাবিক, তার চেয়ে বেশি চুল পড়ে গেলে এবং একই অনুপাতে নতুন চুল না গজালে যে পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়, তাকে চিকিৎসা বিজ্ঞানের ভাষায় অ্যালোপেশিয়া বলা হয়।  দৈনিক ৫০-১০০টি চুল পড়া স্বাভাবিক বলে মনে করেন চিকিৎসকরা।

কিন্তু চুল পড়ার পর নতুন চুল না গজালে মাথার বিভিন্ন জায়গায় বা সম্পূর্ণভাবে টাক পড়ে যেতে পারে। সেটিও এ রোগের কারণেই হয়। এই মূহুর্তে বিশ্বে প্রায় ১৪ কোটিরও বেশি মানুষের অ্যালোপেশিয়া অর্থাৎ পূর্ণ অথবা আংশিক টাক রয়েছে।কখনো একটি নির্দিষ্ট জায়গার চুল পড়ে, কখনো আবার পুরো মাথা থেকে সব চুল পড়ে যায়। কখনো বা ভুরু বা চোখের পাপড়িসহ সারা শরীরের লোমও পড়ে যায়।

বিবিসির প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, প্রতি পাঁচ জন অ্যালোপেশিয়া রোগীর মধ্যে একজনের পরিবারের অন্য সদস্যের এই সমস্যা আছে। এটি হঠাৎ করে শুরু হয়, কখনো একেবারে কয়েকদিনের মধ্যে। যাদের অল্প বা হাতে গোনা কয়েকটি জায়গার চুল পড়ে যাচ্ছে, কখনো হঠাৎ করেই সে জায়গায় চুল গজাতে শুরু করতে পারে। চুল পড়ার স্থায়ী এবং দ্রুত কোন সমাধান নেই।

এই রোগ  অসুস্থতা বা দীর্ঘমেয়াদী রোগভোগ, মানসিক চাপ,  ওজন হ্রাস এবং আয়রনের ঘাটতির জন্য হতে পারে। এছাড়া ভিটামিন বি এবং ডি এর অভাব, কোভিডে আক্রান্ত হওয়া, প্রোটিনের অভাব, মাথায় খুশকি, মানসিক অবসাদ ও বিষাদ, ও  ক্যান্সারের চিকিৎসার কারণেও দেখা দিতে পারে অ্যালোপেশিয়া।

সর্বশেষ
জনপ্রিয়