ঢাকা, বুধবার   ০৮ ডিসেম্বর ২০২১ ||  অগ্রাহায়ণ ২৩ ১৪২৮

ব্যর্থ হলো তারেকের ‘মিশন বায়তুল মোকররম’

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১০:২৯, ১৬ অক্টোবর ২০২১  

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

আন্দোলন করার জন্য বিএনপির শীর্ষ নেতৃত্ব থেকে শুরু করে জেলা পর্যায়ের নেতাদের সাথে টানা বৈঠক করেও দল গোছাতে ব্যর্থ হয়ে শেষমেশ জামায়াতেই ভরসা পায় তারেক। পরিকল্পনা করে হিন্দুদের সব চেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গা পূজাকে কেন্দ্র করে দেশকে অশান্ত করার। বরাদ্দ করে শত কোটি টাকা। টার্গেট- রাজধানীতে বড় ধরনের তাণ্ডব চালানো।

গোপন সূত্রে জানা যায়, পরিকল্পনা ছিল- পূজা মণ্ডপে মুসলমানদের পবিত্র ধর্মগ্রন্থ কোরআন শরীফ রেখে ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত হানবে। শুক্রবার জুমার পর সধারণ মুসলমানরা এর প্রতিবাদ জানাবে এই ভেবে দিনটি কাজে লাগাতে প্রশিক্ষিত জামায়াতের নেতাকর্মীদের প্রস্তুত রেখেছিল তারেক। ছক কষা ছিল, রাজধানীতে বড় ধরনের নাশকতা চালানোর। পুরো মিশনটির নাম দেওয়া হয়েছিল- ‘মিশন বায়তুল মোকররম’।

কিন্তু আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কঠোর তৎপরতায় গোলাবারুদ (ককটেল, পেট্রোল বোম, দেশিয় অস্ত্র) নিয়ে সঠিক সময়ে পৌঁছতে পারেনি তারেকের প্রশিক্ষিত টিম।

জানা যায়, শুক্রবার নাশকতার গোয়েন্দা তথ্য থাকায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনী তৎপর ছিলেন। তল্লাশি চালিয়েছেন বিভিন্ন পয়েন্টে পয়েন্টে। যাতে করে শেষ পর্যন্ত তারা বায়তুল মোকাররম পর্যন্ত আসতে পারেনি।

ফলে ইট-পাটকেল ছুড়েই ক্ষান্ত হয় জামায়াত আর হেফাজতের ফাইটাররা। আর আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর শক্ত অবস্থানের কারণে মাথায় পড়া কালিমা লেখা ফিতা খুলে পালিয়ে যায় তারা। সব মিলিয়ে পণ্ড হয় ফেরারি আসামি তারেক রহমানের ‘মিশন বায়তুল মোকররম’।

এ বিষয়ে রাজনৈতিক বিজ্ঞজনরা বলছেন, প্রতিষ্ঠাকালীন সময় থেকেই বিএনপি সাম্প্রদায়িক। তাদের জন্মই হয়েছে ’৭১-এ পাকিস্তানি মিলিটারির অত্যাচার নির্যাতন থেকে অনুপ্রাণিত হয়ে। নাশকতা ষড়যন্ত্রের মাস্টারমাইন্ড তারেক রহমান এর আগেও এমন ভয়াবহ পরিকল্পনা করেছে। তাই এদের থেকে সচেতন থাকতে হবে সাধারণ মানুষকে। কারণ তারা প্রতিবারই মানুষের মুত্যুর মিছিল মাড়িয়েই ক্ষমতায় গিয়েছে। তারা ক্ষমতায় যাবার জন্য যেকোনো কিছু করতে পারে।

রাজনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
সর্বশেষ
জনপ্রিয়