ঢাকা, বুধবার   ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ||  ফাল্গুন ১৬ ১৪৩০

সিনেমার প্রস্তাব ফিরিয়ে দিলেও দলের নেতাদের ফেরায় না শামা

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১৪:৪৬, ৪ আগস্ট ২০২৩  

শামা ওবায়েদ

শামা ওবায়েদ

নব্বই দশকের শেষের দিকে বাংলা চলচ্চিত্র তার সোনালী সময় পেরিয়ে অন্ধকার যুগে প্রবেশ করে। গোটা চলচ্চিত্র অশ্লীলতা নির্ভর হয়ে পড়ে। এই অশ্লীলতা থেকে ওই সময়কার জনপ্রিয় তারকারাও রক্ষা পাননি। এই তালিকায় হুমায়ুন ফরিদী, মান্না, রুবেল, শাকিব খান, ডিপজল, মৌসুমী’র মত তারকাদের নাম চলে আসে। এমনকি পশ্চিম বাংলার ঋতুপর্ণাকে এনে অশ্লীল সিনেমা তৈরি করার অভিযোগ উঠে। প্রায় এক হাজারেরও বেশি অশ্লীল সিনেমা তৈরি করা হয়েছিল বাংলা চলচ্চিত্রের ওই অন্ধকার সময়ে।

সেই সময় সিনেমায় অভিনয়ের অফার পেয়েছিলেন বর্তমান বিএনপির রূপবতী নেত্রী শামা ওবায়েদ। শাহাদাৎ হোসেন লিটন পরিচালিত ‘কঠিন শাস্তি’ সিনেমায় নবাগত নায়িকা হিসেবে অভিনয় করার প্রস্তাব দেওয়া হয় তাকে।

২০০১ সালে মুক্তি পাওয়া এই সিনেমায় নায়িকার স্নানের দৃশ্যে অশ্লীলতার এক নতুন মাত্রা যোগ করে। সিনেমার প্রত্যেকটা গানে নায়িকাকে অর্ধনগ্ন কিংবা তারচেয়েও বেশিকিছু হিসেবে উপস্থাপন করা হয়। সিনেমার প্রথম থেকে একদম শেষ দৃশ্য পর্যন্ত ডিপজল কোনও না কোনওভাবে যৌন উত্তেজক দৃশ্যের সাথে যুক্ত থাকার চেষ্টায় ছিলেন।

এই অশ্লীলতার কারণে সিনেমাটির প্রস্তাব ফিরেয়ে দেয় বিএনপির নেত্রী শামা ওবায়েদ। কিন্তু তারেক রহমানসহ বিএনপি নেতাদের কামুক দৃষ্টি এড়াতে পারেনি শামা ওবায়েদ।

গত বছরের শেষের দিকে বিএনপির এই নেত্রীর গা ঘেঁষাঘেঁষির ভিডিও ভাইরাল হয়। এরপরই ভাইরাল হয় তার ২৭ সেকেন্ডের নগ্ন ভিডিও। যেখানে শামা ওবায়েদ তার দলের অন্যতম এক নেতার সাথে অন্তরঙ্গ মুহূর্ত কাটাচ্ছিলেন।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, শামার এই ভিডিওটি ধারন করা হয় আড়াই বছর আগে যখন তিনি লন্ডনে গিয়েছিলেন। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার আগে ২০১৮ সালের ১৪ই সেপ্টেম্বর ফরিদপুর-২ আসনের মনোনয়ন পাবার আশায় লন্ডন যান শামা। সে সময়ে তারেক রহমানের মন জোগাতে লন্ডনের কিংস্টন হোটেলের ৩১২ নম্বর রুমে তারেকের কাছে নিজেকে উজাড় করে বিলিয়ে দিয়েছিলেন শামা ওবায়েদ।

এখন বিএনপির কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক শামা ওবায়েদ। দলে তার শক্ত অবস্থান। আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী, আমানউল্লাহ আমান, মির্জা ফখরুল সবাই তাকে সামনের সারিতে রাখেন। তার এই উত্থান দেখে দলটির নারী নেত্রীরাই বলেন- রূপালী জগতের নায়িকা না হলেও বিএনপির অনেক নেতার রাতের নায়িকা শামা ওবায়েদ। প্রভাবশালী কোনো নেতাকেই ফিরিয়ে দেন না তিনি। নিজের আবেদনময়ী রূপ ও যৌবনের যাদুতে পার্মানেন্ট জায়গা করে নিয়েছেন দলে।

রাজনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
সর্বশেষ
জনপ্রিয়