ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ০৪ মার্চ ২০২১ ||  ফাল্গুন ১৯ ১৪২৭

মিয়ানমারের পরিস্থিতি নিয়ে জাতিসংঘের সতর্কবার্তা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

প্রকাশিত: ১২:২৯, ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২১  

জাতিসংঘের মহাসচিব অ্যান্তনিও গুতেরেস

জাতিসংঘের মহাসচিব অ্যান্তনিও গুতেরেস

সেনা অভ্যুত্থান বিরোধী বিক্ষোভে প্রাণঘাতী অস্ত্রের ব্যবহার নিয়ে মিয়ানমারকে সতর্ক করেছে জাতিসংঘ। সংস্থাটির প্রধান মহাসচিব অ্যান্তনিও গুতেরেস টুইট বার্তায় লিখেছেন, এ ধরনের বলপ্রয়োগের ঘটনা একেবারেই অগ্রহণযোগ্য। ভারতীয় সম্প্রচার মাধ্যম এনডিটিভির প্রতিবেদন থেকে তথ্যগুলো জানা গেছে।

গত ১ ফেব্রুয়ারি মিয়ানমারের সামরিক অভ্যুত্থানের বিরুদ্ধে বিভিন্ন শহরে টানা বিক্ষোভ চলছে। সংখ্যালঘু গোষ্ঠী, কবি, পরিবহন শ্রমিকসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ সামরিক শাসন অবসানের দাবিতে বিক্ষোভ করছেন। অভ্যুত্থান বিরোধীরা সর্বশেষ নির্বাচনে জয়ী নেত্রী ও স্টেট কাউন্সেলর অং সান সু চির মুক্তিরও দাবি জানাচ্ছেন।

এর আগে মাথায় গুলিবিদ্ধ এক বিক্ষোভকারী নিহত হয়েছেন। তবে সবচেয়ে বেশি বলপ্রয়োগের ঘটনা ঘটেছে গত শনিবার (২০ ফেব্রুয়ারি) দেশটির দ্বিতীয় বৃহত্তম শহর মান্দালায়ে। বিক্ষোভকারীদের ছত্রভঙ্গ করতে ছোড়া গুলিতে দুই বিক্ষোভকারী নিহত এবং অন্তত ২০ জন আহত হয়।

ওই ঘটনার পর এক টুইট বার্তায় জাতিসংঘ মহাসচিব লিখেছেন, মিয়ানমারে প্রাণঘাতী সহিংসতার নিন্দা জানাচ্ছি। শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভে প্রাণঘাতী বলপ্রয়োগ, ভয় দেখানো এবং হয়রানি করা অগ্রহণযোগ্য।

শান্তিপূর্ণ সমাবেশের অধিকার সকলের রয়েছে জানিয়ে ওই টুইট বার্তায় জাতিসংঘ মহাসচিব সব পক্ষকে নির্বাচনের ফলাফলের প্রতি শ্রদ্ধা দেখাতে এবং বেসামরিক শাসন ফিরিয়ে আনার আহ্বান জানান।

উল্লেখ্য, মিয়ানমারের সেনাবাহিনী দেশটিতে নতুন নির্বাচন আয়োজনে প্রতিশ্রুতি দিলেও তা উপেক্ষা করে রাস্তায় নামছে মানুষ। বিক্ষোভকারীরা সামরিক জান্তার আশ্বাসের ব্যাপারে ব্যাপক সন্দিহান। দেশটির সামরিক বাহিনীর ভাষ্য, গণতান্ত্রিক সরকার উৎখাতে জনগণের সমর্থন আছে। তবে সেই ভাষ্যকে মিথ্যে প্রমাণ করে প্রতিদিনই বড় ধরনের প্রতিবাদ কর্মসূচিতে অংশ নিতে অভ্যুত্থান বিরোধী হাজার হাজার বিক্ষোভকারী।

সর্বশেষ
জনপ্রিয়