ঢাকা, শুক্রবার   ০৪ ডিসেম্বর ২০২০ ||  অগ্রাহায়ণ ১৯ ১৪২৭

বরিশালে বিএনপির কোন্দলের ছায়া যুবদলে

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১৬:৪৭, ২৯ অক্টোবর ২০২০  

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

বরিশালে অভ্যন্তরীণ কোন্দলের কারণে দীর্ঘদিন ধরে তিনটি গ্রুপে বিভক্ত বিএনপি। গ্রুপ তিনটি চালাতেন সরোয়ার-চাঁন-কামাল নামে তিন নেতা। কেন্দ্রীয় যেকোনো কর্মসূচি জেলায় পৃথকভাবে পালন করা হতো। এবার সেই কোন্দলের ছায়া পড়েছে জেলা যুবদলে। দুই গ্রুপে বিভক্ত হয়ে সম্প্রতি দলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে পাল্টাপাল্টি কর্মসূচি পালন করেছেন নেতা-কর্মীরা।

একটি গ্রুপের নেতৃত্ব দিয়েছেন জেলা যুবদলের সভাপতি পারভেজ আকন বিপ্লব, আরেকটি গ্রুপ চলে সাধারণ সম্পাদক এইচ এম তসলিম উদ্দিনের নেতৃত্বে। দুটি গ্রুপই কর্মসূচি দিয়েছে বরিশাল প্রেস ক্লাবে। ফলে উপজেলাসহ দূর-দূরান্ত থেকে আসা নেতা-কর্মীদের কে কোন আয়োজনের অংশ নেবেন- এ নিয়ে দেখা দেয় বিভ্রান্তি।

জেলা যুবদলের তসলিম উদ্দিনের কর্মসূচিতে প্রধান অতিথি ছিলেন দক্ষিণ জেলা বিএনপির সভাপতি এবায়দুল হক চাঁন। অন্যদিকে পারভেজ আকন বিপ্লবের কর্মসূচিতে প্রধান অতিথি ছিলেন উত্তর জেলা বিএনপির সভাপতি মেজবাহ উদ্দিন ফরহাদ। সংকটময় মুহূর্তে সহযোগী এ সংগঠনের কোন্দল জেলা বিএনপিকে আরো দুর্বল করে দেবে, যা বরিশালে বিএনপির রাজনীতিতে নেতিবাচক প্রভাব ফেলবে- এমনটাই মনে করছেন বরিশাল বিএনপি ও যুবদলের তৃণমূল নেতা-কর্মীরা।

জেলা যুবদলের একাধিক নেতা-কর্মী জানান, আধিপত্য বিস্তার নিয়ে উত্তর-দক্ষিণ জেলা বিএনপির শীর্ষ নেতাদের মধ্যে চলমান কোন্দলের প্রভাব যুবদলে পড়েছে। বিশেষ করে উত্তর বিএনপির সভাপতি মেজবাহ উদ্দিন ফরহাদ নিজের আধিপত্য বিস্তারের চেষ্টায় যুবদলের একটি গ্রুপকে নেপথ্য ইন্ধন দেয়ায় সংগঠনটি দুই ভাগে বিভক্ত হয়ে পড়ে।

পূর্ব সিদ্ধান্ত অনুযায়ী যুবদলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর কর্মসূচি একত্রিত হয়ে পালনের কথা থাকলেও একদিন আগে তা বদলে যায়। ফলে জেলা যুবদলের সভাপতি পারভেজ আকন বিপ্লব প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর কেক কাটেন মেজবাহ উদ্দিন ফরহাদকে নিয়ে। বিভিন্ন উপজেলা থেকে আসা অধিকাংশ যুবদল নেতা-কর্মী সাধারণ সম্পাদক এইচ এম তসলিম উদ্দিনের কর্মসূচিতে অংশ নেন। সেখানে দক্ষিণ জেলা বিএনপির সভাপতি এবায়দুল হক চাঁনের নেতৃত্বে কেক কেটে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন করা হয়।

বরিশাল জেলা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক এইচ এম তসলিম উদ্দিন বলেন, কয়েকদিন আগে সভাপতি পারভেজ আকন বিপ্লবের সঙ্গে সভা করে একত্রিত হয়ে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালনের সিদ্ধান্ত নিয়েছি আমরা। কিন্তু আমাকে কিছু না জানিয়ে সভাপতি একক সিদ্ধান্তে মেজবাহ উদ্দিন ফরহাদকে কর্মসূচির প্রধান অতিথি করার ঘোষণা দেন। কিন্তু জেলা দক্ষিণ যুবদলের নেতারা উপেক্ষিত থাকায় আমি সেই সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসতে বাধ্য হয়েছি। উপজেলা পর্যায়ের নেতা-কর্মীরাও এমন সিদ্ধান্তে বিরক্ত। পরবর্তীতে সবার সঙ্গে সমন্বয় করে প্রেসক্লাবে কর্মসূচি পালন করা হয়েছে।

তসলিম উদ্দিনের অভিযোগ- মেজবাহ উদ্দিন ফরহাদ উত্তর জেলা বিএনপির সভাপতি হলেও তিনি গোটা বরিশাল বিএনপি নিয়ন্ত্রণ করতে চান। এ কারণে ইন্ধন দিয়ে জেলা যুবদলের সভাপতি পারভেজ আকন বিপ্লবকে দিয়ে গ্রুপিং সৃষ্টি করিয়েছেন। ব্যক্তিগত সুবিধা নিতে গিয়ে উল্টো বরিশাল বিএনপিকে আরো দুর্বল করে দিচ্ছেন। যার প্রভাব পড়েছে জেলা যুবদলেও।

বরিশাল দক্ষিণ জেলা বিএনপির সভাপতি এবায়দুল হক চাঁন বলেন, বরিশাল বিএনপি দির্ঘদিন ধরেই কোন্দলে ভুগছে। আমরা যখন এ কোন্দল থেকে বের হওয়ার উপায় খুঁজছি, তখনই নতুন করে গ্রুপিং সৃষ্টি করেছেন উত্তর জেলা বিএনপির সভাপতি মেজবাহ উদ্দিন ফরহাদ। তবে তার এ অপচেষ্টা সফল হয়নি। আমরা ঐক্যবদ্ধভাবে দলকে সুসংগঠিত করবো।

সর্বশেষ
জনপ্রিয়